RBI Digital Rupee - কি? কবে থেকে চালু হবে? কি ভাবে লেনদেন করতে হবে? দেখতে কেমন হবে?

 

India digital rupee
Digital Rupee launch Date

ডিজিটাল রুপি কি | What is Digital rupee | ডিজিটাল রুপি কবে থেকে চালু হবে | Digital Rupee launch Date | ভারতের ডিজিটাল টাকার নাম কি | India Digital Rupee Name| লিমিট, সুবিধা- অসুবিধা

RBI Digital Rupee: আধুনিক যুগে নিজের দেশেকে একধাপ আগিয়ে রাখতে অনেক দেশ টাকা-পয়সার ডিজিটাল মাধ্যম চালু করেছে। আর তালে তাল মেলাতে ভারত সরকার নিজের Digital Rupee/ ডিজিটাল মুদ্রা আনতে চলেছে আজ। বাজেট ঘোষণার সময় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ডিজিটাল মুদ্রার চালু করার কথা বলেছেন। আপনি ঘরে বসেই এই ডিজিটাল রূপে থাকা টাকা গুলিকে খুব সহজেই আদানপ্রদান করতে পারবেন । যা সময় বাঁচাবে টাকার দূর নীতি ক্ষয় করবে। তবে এই কথা গুলি শোনার পর আমাদের মধ্যে অনেক প্রশ্ন জাগে  যেমন Digital Rupee কি? কবে থেকে চালু হবে? কি ভাবে লেনদেন করতে হবে? এর সুবিধা অসুবিধা? এই সব প্রশ্ন গুলির উত্তর জানাতে সম্পূর্ণ নিবন্ধ টি আপনাকে পড়তে হবে।

       

    ডিজিটাল রুপি কি, What is Digital Rupee in Bengali -

    ডিজিটাল রুপি কী এটা বুঝতে গেলে আপনাকে সবার আগে CBDC ( Central Bank Digital Coin সম্পর্কে জানতে হবে। একটি ডিজিটাল টাকা যা সম্পূর্ণরূপে ইলেকট্রনিক আকারে পাওয়া যায়। যা দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক থেকে জারি করা হয়। যেমন ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক হল RBI ( Resa bank of india)।  আর এই দেশে একটি ডিজিটাল মুদ্রা চালু করার ক্ষমতা শুধু RBI এর হাতে আছে। এই মুদ্রা অনেকটাই কাগজের নোটের  মতোই, তবে এটিকে আপনি হাতে গুণতে পারবেন না এবং এটি সম্পূর্ণ ভাবে আপনার অলেটে সংরক্ষিত থাকবে। এই ডিজিটাল রুপিটি হবে ভারতের CBDC এবং বর্তমান প্রচলিত মুদ্রার  ডিজিটাল সংস্করণ হিসেবে প্রকাশ পাবে। যা ডিজিটাল ভাবে লেনদেনে ব্যবহার করা যাবে। বাজেট পেশের পর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও তেমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন ডিজিটাল মুদ্রা সম্পর্কে।

    কেন ভারত সরকার তার নিজস্ব ডিজিটাল রুপি তৈরি করছে?

    ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলির মতো এই নতুন ব্যবস্থাগুলিকে নিয়ে বিশ্বের তাবড় দেশগুলিও যথেষ্ট চিন্তায় রয়েছে। কারণ, এই মুদ্রাকে সরকার নিয়ন্ত্রণ করতে পারে না বা সেই লেনদেন কোথা থেকে কোথায় যাচ্ছে… কিছুই জানা সম্ভব নয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার উদ্বিগ্ন যে, এই ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলি বিভিন্ন অবৈধ কার্যকলাপ, জঙ্গি কার্যকলাপ থেকে শুরু করে বড় অঙ্কের কর ফাঁকি দেওয়ার ক্ষেত্রও ব্যবহার করা হতে পারে। তার উপর এত বেশি অঙ্কের মুদ্রা যখন দেশের মুদ্রা ব্যবস্থার আওতার বাইরে থাকে, তখন সরকারের পক্ষে সঠিক আর্থিক নীতি প্রণয়নের সময়েও সমস্যায় পড়তে হয়ে থাকে। এদিকে ক্রিপ্টোর বাজার দিন দিন আরও বড় হচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে কোনও দেশই এটিকে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ করতে পারছে না। তাই, বৈধ বিকল্পের জন্য, ভারত সরকার মূলত রিজার্ভ ব্যাঙ্কের থেকে নিজস্ব ডিজিটাল রুপি চালু করার পথে হাঁটছে।

    ডিজিটাল রুপি আর টাকা কী তফাৎ? Digital Rupee vs Money? 

    ডিজিটাল রুপি এবং ডিজিটাল টাকা মধ্যে প্রযুক্তিগত পার্থক্য রয়েছে। এক বক্তৃতায়, RBI-এর ডেপুটি গভর্নর টি রবি শঙ্কর, ডিজিটাল রুপি এবং UPI-এর মধ্যে পার্থক্য তুলে ধরেছিলেন। তাঁর মতে, “CBDC-র ক্ষেত্রে অন্যান্য ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেমের তুলনায় কিছু সুস্পষ্ট সুবিধা রয়েছে। CBDC ব্যবহারে ঝুঁকি অনেকটা কম। এমন একটি UPI ব্যবস্থার কথা ভাবুন, যেখানে ব্যাঙ্ক ব্যালেন্সের পরিবর্তে CBDC লেনদেন করা হয়। সেক্ষেত্রে দুটি ব্যাঙ্কের ক্ষেত্রে আর্থিক নিষ্পত্তির প্রয়োজনীয়তা থাকে না। CBDC ব্যবস্থা আর্থিক লেনদেনেরে ব্যবস্থাকে আরও রিয়েল-টাইম করে তুলবে।”
    সেই সঙ্গে তিনি আরও বলেন, “একজন ভারতীয় যখন বাইরে দেশ থেকে কিছু আমদানি করছেন, তখন  কোনও মধ্যস্থতাকারীর প্রয়োজন ছাড়াই ডিজিটাল রুপি দিয়ে সহজেই লেনদেন করতে পারবেন ৷ এই ক্ষেত্রে লেনদেনের জন্য মার্কিন ফেডারেল রিজার্ভ সিস্টেমের সঙ্গে কোনো সম্পর্ক থাকবে না।

    ডিজিটাল রুপি দেখতে কেমন হবে?

    ডিজিটাল শব্দের মধ্যে ঢুকে আছে ডিজিটাল রুপির কেমন দেখতে হবে। এটি সম্পূর্ণরূপে ইলেকট্রনিক আকারে পাওয়া যাবে আপনার একাউন্ট বা ডিভাইসে ওয়ালেট ।

    আরবিআইয়ের ডিজিটাল রুপি কবে থেকে চালু হবে- When did RBI launch digital rupee?

    ভারত সরকার 2023-2024 সালের মধ্যে কোনও এক সময় ডিজিটাল রুপি প্রকাশ করতে চলেছে। রিজার্ভ ব্যাঙ্ক 2018 সাল থেকে নিজস্ব ডিজিটাল মুদ্রা চালু করার কথা ভাবছিল। রিজার্ভ ব্যাংক তার ভাবনাকে খুব শীঘ্রই বাস্তবে রূপান্তরিত করতে চলেছে। সব ঠিক থাকলে, এই বছর অথবা আগামী বছরের শুরুতেই এই ব্লক চেন ভিত্তিক ডিজিটাল রুপি আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে ভারত সরকার।

    ডিজিটাল রুপি এর সুবিধা? What Are The Advantages Of Digital Rupee?

    এখানে ডিজিটাল মুদ্রার কিছু সুবিধা রয়েছে:
    • খুব তাড়াতাড়ি এক জায়গায় থেকে অন্য জায়গায় টাকা আদানপ্রদান।
    • 24/7 উপলব্ধতা
    • সঠিক হিসাব নিকাশ এর সুবিধা
    • টাকা- পয়সার দূর্নীতি হ্রাস
    • খুব সহজেই বিশ্বব্যাপী লেনদেন করা যাবে
    • সুরক্ষিত পেমেন্ট
    • ডিজিটাল রুপি অর্থের ট্রেইল তৈরি করতে পারবে।
    • ফুড স্ট্যাম্পের মতো অর্থপ্রদান এবং লোকেদের ট্যাক্স ফেরত পাঠাতে পারবে সরকার।
    • ট্রানজ্যাকশন ফি কম

    ডিজিটাল রুপি এর অসুবিধা? What Are The Disadvantages Of Digital Rupee?

    • সাইবার সিকিউরিটির সমস্যা।
    • প্রত্যেক মানুষের মধ্যে ডিজিটাল রুপির তথ্য অস্পষ্ট।
    এছাড়াও অনেক অসুবিধা সামনে আসতে পারে ঠিক কি সমস্যা সৃষ্টি হবে- ডিজিটাল রুপি বাজারে চালু করা পর বোঝা যাবে।

    UPI এবং ডিজিটাল রুপির মধ্যে পার্থক্য কী? Digital Rupee vs UPI -

    ডিজিটাল রুপি RBI দ্বারা জারি করা একটি ডিজিটাল টাকা। UPI হল একটি প্ল্যাটফর্ম যা লক্ষ লক্ষ ভারতীয়দের জন্য ডিজিটাল পেমেন্ট সক্ষম করে৷

    ________________

    সব তথ্য সবার আগে তে Follow করুন তথ্যসূত্র Facebook, Telegram, Whatshapp, 

    টেলিগ্রাম চ্যানেল:- Link

    হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ:- Link

    FAQ India Digital Rupee-


    ডিজিটাল রুপি কি ?

    একটি ডিজিটাল টাকা যা সম্পূর্ণরূপে ইলেকট্রনিক আকারে পাওয়া যায়। যা দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক থেকে জারি করা হয়। যেমন ভারতের কেন্দ্রীয় ব্যাঙ্ক হল RBI

    ভারতের ডিজিটাল টাকার নাম কি ?

    ডিজিটাল রুপি (e₹) বা eINR বা E-রুপী হল ভারতীয় ডিজিটাল মুদ্রা।

    ভারতে ডিজিটাল রুপি কে চালু করেন?

    রিজার্ভ ব্যাংক ওফ ইন্ডিয়া।

    ডিজিটাল রুপির একদিনে ট্রানজ্যাকশন লিমিট কত?

    50000 টাকার উপরে ট্রানজ্যাকশন করলে আপনাকে আপনার প্যান কার্ড জারি করতে হবে।


    একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

    নবীনতর পূর্বতন